Home / News / শেরপুরের সেই ভিক্ষুককে জমি-বাড়ি-দোকান দিচ্ছে সরকার

শেরপুরের সেই ভিক্ষুককে জমি-বাড়ি-দোকান দিচ্ছে সরকার

শেরপুরের ঝিনাইগাতীতে ভিক্ষার ১০ হাজার টাকা কর্মহীনদের সহায়তা তহবিলে দান করা সেই ভিক্ষুককে ঘর তুলে দিবেন প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেওয়া হবে দোকান ও আজীবন চিকিৎসা সুবিধা। এতে উচ্ছসিত এলাকার মানুষও। 

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার গান্ধিগাঁও গ্রামের ভিক্ষুক নাজিম উদ্দিন। জীবনের ৮০ বছর পাড়ি দিচ্ছেন দুঃখের সাগর। বারবার সংসার গড়েছেন। কিন্তু ভরণ-পোষণ দিতে পারেন না বলে বেশ কয়েকজন স্ত্রী চলে গেছেন। সর্বশেষ এক মানসিক প্রতিবন্ধী নারীকে নিয়ে ঘর করছেন। এ ঘরের এক কন্যা, এক পুত্র সন্তানের জনক নাজিম উদ্দিন ভাঙ্গা মাটির দেয়ালের ঘরটি মেরামতের জন্য তিন বছর ভিক্ষাবৃত্তি করে সঞ্চয় করেন দশ হাজার টাকা। সেই টাকাটিই দান করে দেন করোনাভাইরাসের কারণে ঝিনাইগাতীতে কর্মহীনদের জন্য খোলা সহায়তা তহবিলে। এটা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হলে তোলপাড় শুরু হয় জেলা জুড়ে। বিষয়টি নজরে আসে প্রধানমন্ত্রীর দফতরেও। 

বুধবার (২২ এপ্রিল) জেলা প্রশাসক আনার কলি মাহবুব ভিক্ষুক নাজিম উদ্দিনকে তার কার্যালয়ে ডেকে নিয়ে সংবর্ধনা দেন। তাকে উত্তরীয় পরিয়ে দিয়ে হাতে তুলে দেন নগদ বিশ হাজার টাকা। তাকে জানান, প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে জমি ও বাড়ি প্রদানের কথা।

এ প্রতিক্রিয়ায় ভিক্ষুক নাজিম উদ্দিন জানান, আমি কোনো প্রতিদান পাওয়ার আশায় এ দান করি নাই। আমার দিন আগেও যেভাবে চলেছে, এখনও সেভাবেই চলে যাবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুবেল মাহমুদ জানান, গান্ধিগাঁও গ্রামের ইউপি সদস্যরা অসহায় মানুষের তালিকা করতে গিয়ে, তার ইচ্ছের কথা জানতে পারেন। পরে আমার কাছে নিয়ে আসেন। সময়টা এখন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর। সবাই দাড়াচ্ছে কি? কিন্তু এই ভিক্ষুক বুঝিয়ে দিয়েছেন, মানুষ মানুষের জন্য।

About Abdullah

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *